May 16, 2021, 12:28 pm

শিরোনাম
পিরোজপুরে অসহায় কর্মহীন মানুষের পাশে “ফ্রেন্ডস’ ৯৭ পিরোজপুর” লকডাউন বাড়ছে ১৬ মে পর্যন্ত, এক জেলা থেকে আরেক জেলায় গণপরিবহন বন্ধ থাকবে। প্রবাসী আয়ে ঢল, রিজার্ভ বেড়ে ৪৫ বিলিয়ন ডলার,এপ্রিলে ২০৬ কোটি ডলার পাঠিয়েছেন প্রবাসীরা । মে মাসের প্রথম দুই দিনে এসেছে ১৫ কোটি ৪০ লাখ ডলার। যত টাকা লাগুক, প্রয়োজনীয় করোনার টিকা আনা হবে: প্রধানমন্ত্রী পিরোজপুর জেলা সেভ দ্যা ফিউচার ফাউন্ডেশনের পবিত্র রমজান মাসে খাদ্যদ্রব্য বিতরণ। পিরোজপুর HDTএর সৌজন্যে সেলাই মেশিন বিতরণ। লকডাউনে পিরোজপুর শহরে মাদকের ভয়াবহতা বেড়ে যাওয়ার অভিযোগ! করোনাকালে অসহায় কৃষকের ধান কেটে দিলেন পিরোজপুর জেলা ছাত্রলীগ। একসঙ্গে কাজ করবে হোয়াটসঅ্যাপ ও ফেসবুক মেসেঞ্জার মেয়ের বিরুদ্ধে হত্যার চেষ্টা ও ষড়যন্ত্র মুলক মামলা দায়ের করলো “মা”।

মেয়ের বিরুদ্ধে হত্যার চেষ্টা ও ষড়যন্ত্র মুলক মামলা দায়ের করলো “মা”।

নিজস্ব প্রতিনিধি : বাগেরহাটের শরণখোলায় উপজেলায় একটি মার্কেটের সম্পত্তি ভাগবাটোয়ারা নিয়ে বিরোধের জেরে মেয়ের বিরুদ্ধে হত্যা চেষ্টার মামলা দায়ের করেছেন তার মা। ছোট মেয়ে সাদিয়া সুলতানা বিথিকে ওই সম্পত্তি থেকে বঞ্চিত করতে বড় মেয়ে তানিয়া আক্তার সাথীর পক্ষ নিয়ে মামলাটি দায়ের করেন মা হেনা কবির।

আর এই সব পারিবারিক গোলযোগে উপজেলা আওয়ামীলীগের প্রভাবশালী নেতৃত্বের হাত রয়েছে । প্রয়াত বাবার রেখে যাওয়া সম্পত্তির ন্যায্য অংশ বুঝে পাওয়া এবং মিথ্যা মামলা প্রত্যাহারের দাবিতে রবিবার দুপুরে শরণখোলা প্রেসক্লাবে সংবাদ সম্মেলন করে এ সব কথা বলেন সাদিয়া সুলতানা বিথি। সাংবাদ সম্মেলনে বিথি বলেন, আমার বাবা শরণখোলা উপজেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক ছিলেন। তার মৃত্যুর পর আমরা দুই বোন হেবা দলিল অনুযায়ী উপজেলা সদরের পাঁচরাস্তার মোড়ে বাবার নামের বাবুল সুপার মার্কেটের দোকান ভাড়া দিয়ে ভোগ দখল করে আসছি। কিন্তু বড় বোন তানিয়া আক্তার সাথী এবং দুলাভাই মঞ্জুরুল ইসলাম উপজেলা আওয়ামীলীগের প্রভাবশালী একটি মহলের কু-পরামর্শে মার্কেটটি এককভাবে দখল করার ষড়যন্ত্র করেন।

সাদিয়া সুলতানা বিথি বলেন, বোন-ভগ্নিপতির এমন ষড়যন্ত্র টের পেয়ে আমি আদালতে একটি মামলা দায়ের করি। আদালত মামলাটি আমলে নিয়ে মার্কেটের উভয় পক্ষকে স্থিতাবস্থা বজায় রাখার নির্দেশ দেন। কিন্তু আদালতের নির্দেশ উপেক্ষা করে সার্থান্বেষীদের ইন্ধনে আমার অংশের দুই ভাড়াটিয়ার দোকানে ১৩ এপ্রিল প্রকাশ্য দিবালোকে হামলা ও লুটপাট চালায় সন্ত্রাসীরা। এব্যাপারে আমার ভারাটিয়ারা ওই সন্ত্রসীদের বিরুদ্ধে শরণখোলা থানায় দোকান লুটের মামলা দায়ের করেন। বিথি বলেন, এঘটনার পর আওয়ামীলীগের প্রভাবশালী মহলটি পারিবারিক বিরোধ সৃষ্টি করে আমার মা হেনা কবিরকে দিয়ে আমাকেসহ আমার দুই ভাড়াটিয়ার বিরুদ্ধে গত ১৬ এপ্রিল পাল্টা একটি মিথ্যা মামলা দায়ের করিয়েছেন।

স্বার্থান্বেষী মহলটি ষড়যন্ত্র করে আমাকে বাবার সম্পত্তি থেকে বঞ্চিত করতে উঠেপড়ে লেগেছে। আমি আমার বাবার রেখে যাওয়া সম্পত্তির ন্যায্য অধিকার ফিরে পাওয়াসহ ষড়যন্ত্র থেকে বাঁচতে প্রশাসনের সহযোগীতা কামনা করছি। নিজের মেয়ের বিরুদ্ধে মামলার বিষয়ে মুঠোফোনে জানতে চাইলে মিসেস হেনা কবির বলেন, আমার বড় জামাইয়ের টাকা দিয়ে মার্কেট নির্মাণ করা হয়েছে। তাই ওই মার্কেট বড় মেয়ে সাথীকে দেয়া হয়েছে এবং ছোট মেয়ে বিথিকে অন্য জায়গা দেওয়া হয়েছে। তাতে সে রাজি না হওয়ায় এমন পরিস্থিতির সৃষ্টি হয়েছে।

শেয়ার করুন

© All rights reserved, প্রবাসী ক্লাব ফাউন্ডেশন- The Expat Club Foundation. (এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি)।  
Design & Developed By NCB IT
Shares