September 19, 2021, 10:44 pm

শিরোনাম
চাকরিজীবীরা একে অপরকে বিয়ে করতে পারবে না,সাংসদ বাবলুর প্রস্তাব বঙ্গবন্ধুর শাহাদাত বার্ষিকী উপলক্ষে ১১-২০ গ্রেডের সরকারি চাকুরিজীবীদের দোয়া ও তাবারক বিতরণ। জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৪৬- তম শাহাদাত বার্ষিকী উপলক্ষে দোয়া অনুষ্ঠান। পিরোজপুর সদর উপজেলা জেলা সেভ দ্য ফিউচার ফাউন্ডেশন এর পূর্ণাঙ্গ কমিটি ঘোষণা শোকের মাসে সৌদি প্রবাসীদের দূতাবাসের বিশেষ সেবা প্রদান করা হবে- রাষ্ট্রদূত মোহাম্মদ জাবেদ পাটোয়ারী পিরোজপুর সদর উপজেলা পরিষদ থেকে, সামাজিক সংগঠন এমিনেন্ট বয়েজ কে কাভিট ইকুপমেন্ট প্রদান। মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর উপহারের ঘরের জন্য ঘুষ না দেওয়ায় মারপিট! ইন্দুরকানীতে স্বেচ্ছাসেবক লীগের -২৭ তম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী পালিত! ছাত্রদল নেতা সিরাজ এখনো বয়ে বেড়ান তার সেই ভয়াবহ গুলির স্মৃতি পিরোজপুর সদরে ভূইফোঁড় সাংবাদিক ও মানবাধিকার নেতার ছড়াছড়ি।

বাগেরহাটে গাছে আমের মুকুলে ভরপুর স্বপ্ন বুনছেন চাষিরা।

রাজু চৌধুরী (বাগেরহাট): বছর ঘুরে সময়ের পালাবদলে ঋতুরাজ বসন্ত এসেছে। ফাগুনের সঙ্গে শীতের তীব্রতাও নিয়েছে বিদায়। একই সঙ্গে আমের জেলা বাগেরহাটের আমের বাগান মুকুলে ছেড়ে গেছে। বিশেষ করে বাগেরহাটের মোংলা উপজেলায় আমের সোনালী মুকুল এ ভরে গেছে প্রায় প্রতিটি বাগান।

বসন্তের দক্ষিণা হাওয়ায় দোল খাচ্ছে ডালে ডালে। যেন প্রকৃতি সেজেছে আমের মুকুলের নোলকে। মুকুলের মিষ্টি ঘ্রাণে গাছে গাছে মৌমাছির ভিড়। বছর ঘুরে গাছে আমের মুকুল ঋতু বৈচিত্র জানান দিচ্ছে ঋতুরাজ বসন্তের আগমন। অধিকাংশ গাছেই আমের মুকুল, কিছু গাছে। আগাম গুটিও দেখা দিয়েছে। আবহাওয়াগত কারনে বাগেরহাট জেলা আমের খ্যাতি রয়েছে বেশ। বানিজ্যিকভিত্তিক চাষিদের মাঝে আম উৎপাদনের আগ্রহ দিন দিন বাড়তেছিল তুলনায় যদিও তবে এখন একটু মন্দা। কারণ প্রয়োজনের তুলনায় অনেক বেশি বাগান গড়ে উঠেছে এ এলাকা গুলোতে। গত পাঁচ বছর ব্যবসায়ীরা বেশি মুনাফা পাওয়ায় পরের বছর ব্যাপক হারে নতুনভাবে রোপন করে আরো নতুন কিছু খেটে খাওয়া ব্যবসায়ীরা।

তাদের ও স্বপ্ন যে আমিও অন্যান্যদের মত সফল হব। তাই কিছুটা হলেও এ ক্ষাতে বাজার মন্দ দেখা দিতে পারে বলে জানান আম ব্যবসায়ী আবু তালেব। দেখা গেছে, বাগানের আম গাছগুলোতে মুকুলের ভারে নুইয়ে পরছে গাছের শাখা প্রশাখা। মুকুলের পরিচর্যা করতে শুরু করেছেন আম চাষিরা। রোগ – বালাইয়ের হাত থেকে মুকুল রক্ষায় চাষিরা কৃষি অফিসের পরামর্শনিচ্ছেন। ভাল ফলনের আশায় স্প্রে পদ্ধতিতে প্রয়োগ করছেন বিভিন্ন বালাইনাশক। আর বাগেরহাট জেলার প্রায় প্রতিটি বাড়ীতেই কমবেশি আমগাছ রয়েছে। আবার অনেক বারো মাসি আমগাছও লাগিয়েছেন নতুনভাবে। বাগেরহাটের আম ব্যবসায়ী নজরুল শেখ বলেন অন্য বছরের তুলনায় এবার গাছে অনেকটা আগাম মুকুল এসেছে।

তাই আগে থেকে গাছের পরিচর্যা করতে শুরু করছি। তবে কয়েক দিন ঘন কুয়াশার কারণে মুকুলের কিছুটা ক্ষতি হয়েছে। বালাই নাশক স্প্রে করে ভাল ফলাফল আশা করছি। আরেক আম ব্যবসায়ী ইয়াছিন শেখ বলেন, কিছু কিছু বিষ কম্পানির গুনগত মান এতটাই খারাপ যে স্প্রে করার পর ও রেজাল্ট নিয়ে টেনশন করতে হয় এবং বোতলের লেবেলে দাম যদি ১২০০ থাকে বিক্রি হয় ৪০০/৫০০ টাকায় এতে আমরা সাধারণ ব্যবসায়ীরা ঠকার সম্ভাবনা থেকেই যায় ও মনের বিষয় টা নিয়ে ও টেনশন থেকেই যায়। তাই এ বিষয়ে যথাযথ কর্তৃপক্ষের কাছে দৃষ্টি আকর্ষন করছি। আবহাওয়া অনুকূলে থাকলে গতবারের তুলনায় এবারে বেশি ফলনের আশা করছে সব আম বাগান ব্যবসায়ীরা।

শেয়ার করুন

© All rights reserved, প্রবাসী ক্লাব ফাউন্ডেশন- The Expat Club Foundation. (এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি)।  
Design & Developed By NCB IT
Shares