September 21, 2021, 4:58 pm

শিরোনাম
চাকরিজীবীরা একে অপরকে বিয়ে করতে পারবে না,সাংসদ বাবলুর প্রস্তাব বঙ্গবন্ধুর শাহাদাত বার্ষিকী উপলক্ষে ১১-২০ গ্রেডের সরকারি চাকুরিজীবীদের দোয়া ও তাবারক বিতরণ। জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৪৬- তম শাহাদাত বার্ষিকী উপলক্ষে দোয়া অনুষ্ঠান। পিরোজপুর সদর উপজেলা জেলা সেভ দ্য ফিউচার ফাউন্ডেশন এর পূর্ণাঙ্গ কমিটি ঘোষণা শোকের মাসে সৌদি প্রবাসীদের দূতাবাসের বিশেষ সেবা প্রদান করা হবে- রাষ্ট্রদূত মোহাম্মদ জাবেদ পাটোয়ারী পিরোজপুর সদর উপজেলা পরিষদ থেকে, সামাজিক সংগঠন এমিনেন্ট বয়েজ কে কাভিট ইকুপমেন্ট প্রদান। মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর উপহারের ঘরের জন্য ঘুষ না দেওয়ায় মারপিট! ইন্দুরকানীতে স্বেচ্ছাসেবক লীগের -২৭ তম প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী পালিত! ছাত্রদল নেতা সিরাজ এখনো বয়ে বেড়ান তার সেই ভয়াবহ গুলির স্মৃতি পিরোজপুর সদরে ভূইফোঁড় সাংবাদিক ও মানবাধিকার নেতার ছড়াছড়ি।

মানিকগঞ্জে চেয়ারম্যানের উপস্থিতিতে দুই জনকে কুপিয়ে জখম

মানিকগঞ্জে চেয়ারম্যানের উপস্থিতিতে তার লোকজন প্রকাশ্য দিবালোকে ছাত্রলীগ নেতাসহ দুই জনকে কুপিয়ে জখম করেছে। এর প্রতিবাদে রবিবার (৯ আগস্ট) দুপুরে মানিকগঞ্জের দৌলতপুর উপজেলার জিয়নপুর ইউনিয়ন পরিষদ চত্ত্বরে বিক্ষোভ কর্মসূচী ও মানববন্ধন করেছে এলাকাবাসী।

বেলা ১২টায় আয়োজিত মানববন্ধনে বক্তব্য রাখেন বেগম জরিনা কলেজের প্রভাষক আতোয়ার হোসেন, জিয়নপুর ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক রাকিবুল হাসান রব, ৭ নং ওয়ার্ডের সাবেক মেম্বার নুরুল আমিনসহ অনেকে।

বক্তারা বলেন, জিয়নপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান বেলায়েত হোসেন তার নামে করা একটি কলেজের এমএলএসএস পদে চাকরি দেওয়ার কথা বলে ২০১৫ সালে ওই এলাকার লুৎফর খানের ছেলে মনির খান সাহাদের কাছ এক লাখ টাকা নেয়। দীর্ঘ সময় অতিবিাহিত হলেও তাকে সেই চাকরি না দিয়ে আরও তিন লাখ টাকা দাবি করেন।

এর প্রতিবাদ করে সাহাদের চাচাতো ভাই কাউছার খান মামুন (৩৫) ও তার ভাতিজা হাসান খান (১৭)। তারই জের ধরে শনিবার (৮ আগস্ট) দুপুরে কাউছার ও হাসানকে আমতলী বাজার এলাকায় পেয়ে চেয়ারম্যানের উপস্থিতিতে তার লোকজন প্রকাশ্য দিবালোকে কুপিয়ে জখম করে রাস্তায় ফেলে রাখে।

আহত চাচা-ভাতিজাকে উদ্ধার করে প্রথমে দৌলতপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়। পরে আশঙ্কাজনক অবস্থায় তাদেরকে দ্রুত মানিকগঞ্জ জেলা হাসপাতালে নেওয়া হয়েছে। সেখানে তারা চিকিৎসাধীন।

চেয়ারম্যান বেলায়েত হোসেনসহ হামলাকারীদের দ্রুত সময়ের মধ্যে গ্রেফতার করে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি জানিয়েছেন এলাকাবাসী।

দৌলতপুর থানার অফিসার-ইন-চার্জ (ওসি) মো. রেজাউল করিম বলেন, হামলার আহত কাউছার ও মামুন খানের ভাই শাহ আলম খান জিয়নপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান বেলায়েত হোসেন, তার তিন ভাইসহ পাঁচজনের বিরুদ্ধে অভিযোগ দায়ের করেছেন। পুলিশ তদন্ত করে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করবে।

এ বিষয়ে জিয়নপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ার‌ম্যান বেলায়েত হোসেন বলেন, কাউসার এবং হাসানের ওপর সন্ত্রাসী হামলা হয়েছে। তবে তিনি এই হামলার সঙ্গে জড়িত নন বলে দাবি করেন।

শেয়ার করুন

© All rights reserved, প্রবাসী ক্লাব ফাউন্ডেশন- The Expat Club Foundation. (এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি)।  
Design & Developed By NCB IT
Shares