October 21, 2020, 10:21 am

পদত্যাগ নয়, বরখাস্ত করা হয়েছে স্বাস্থ্যের ডিজি আজাদকে।

বহুল বিতর্কিত আলোচিত এবং সমালোচিত ব্যক্তি ডিজি আজাদ।তার সকল অপকর্ম এক এক করে ফাঁস হচেছ।বালিশ কেলেঙ্কারি পর্দা কেলেঙ্কারি থেকে হাসপাতালের মেশিন কেনায় বিশ গুন দাম লিখে সরকারের টাকা চুরির ঘটনা বেরিয়ে আসতেছে।

অবাক করা বিষয় দূর্নীতির এই মহাউৎসব এর সাথে উপরের তলা থেকে নিচের তলার ঝাড়ুদা পর্যন্ত জড়িত। এই করোনা মহামারীতে তারা সরকারের হাজার কোটি টাকা লোপাট করেছে।সরকারের ভাবমূর্তি নষ্ট করে তারা টাকার পাহাড় করেছে।বাংলার আঠারো কোটি মানুষকে চিকিৎসা সেবা না দিয়ে মানুষদের কে রাস্তায় মেরে ফেলেছে।

বাংলার জনগন তাই আজ ডিজি আজাদের মত স্বাস্থ্য মন্ত্রীর ও পদত্যাগ এবং বিচারের আওতায় এনে বিচার করার জোর দাবি জানাচেছ।

সরকারের ভাবমূর্তি প্রতিষ্ঠা করতে হলে এই সকল অপরাধীর বিচার করতে হবে।দেশের ইজ্জত যারা বিদেশে নিলামে উঠিয়েছে তাদের কে প্রকাশ্যে গুলি করে মেরে ফেলা উচিৎ বলে মনে করে সকল প্রবাসীরা।বাংলাদেশ থেকে এই সকল কুলাঙ্গারদের কে বের করে দেয়া উচিৎ বলে মনে করে দেশের আপামর জনতা।সাহেদ,সাবরিনা,জিকে শামীম এদের কে এরা সৃষ্টি করেছে তাই এদের কঠিন বিচার হওয়া দরকার।

প্রবাসীদের কে আজ প্রতিনিয়ত বিপদের মুখে পড়তে হচেছ এই গং দের কারনে, বাংলাদেশের সম্মান আজ তলানিতে এসে দাঁড়িয়েছে।শেখ মুজিবের সোনার বাংলা বানাতে হলে দূর্নীতিবাজ সবাইকে আইনের আওতায় এনে বিচার করে শাস্তি নিশ্চত করতে হবে তাহলে বাংলাদেশ কে শেখ মুজিবুর রহমানের সোনার বাংলা বানানো যাবে বলে সকলে মনে করে।

পদত্যাগ আর বরখাস্তের মধ্যে পার্থক্য আছে। পদত্যাগ করে সন্মানিত ব্যাক্তিরা।আমি বিশ্বাস করি জননেত্রী শেখ হাসিনার সরকার এই দুর্নীতিবাজ স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের ডিজিকে বহিস্কার করেছেন, উনি স্বেচ্ছায় পদত্যাগ করেন নাই।

লেখক:

ইমাম হাসান শরীফ
বার্তা সম্পাদক, প্রবাসী প্রতিদিন

শেয়ার করুন

© All rights reserved, প্রবাসী ক্লাব ফাউন্ডেশন- The Expat Club Foundation. (এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি)।  
Design & Developed By NCB IT
Shares