March 7, 2021, 11:16 pm

শিরোনাম
জয় হোক মানবতার, জয় হোক সাপোর্ট এর মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর কাছে ইরাক প্রবাসী খোলা চিঠি। টাকার মেশিন এমপি নূর মোহাম্মদের বিকাশ নাম্বার, অজ্ঞাত উৎস থেকে প্রতিদিন ঢুকছে টাকা! বাংলাদেশ থেকে ১২ হাজার কর্মী নেবে সিঙ্গাপুর ও রোমানিয়া কৌশলে রেজিস্ট্রেশন করে টিকা নিচ্ছেন ৪০ বছরের কম বয়সীরাও! বিশ্ববিদ্যালয় খুলবে ২৪ মে,আবাসিক হল ১৭ মে: শিক্ষামন্ত্রী পিরোজপুরে স্কুল শিক্ষিকার বাসা থেকে গৃহপরিচারিকার ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার। “বকুলতলা ফাউন্ডেশনের পক্ষ থেকে অমর একুশের ভাষা শহিদদের স্মৃতির প্রতি শ্রদ্ধার্ঘ ও পুষ্পস্তবক অর্পণ” ভাষা শহীদদের জন্য বায়তুল মোকাররমে দোয়া ও মোনাজাত বাগেরহাটে গাছে আমের মুকুলে ভরপুর স্বপ্ন বুনছেন চাষিরা।

আসছে ঢাকা-বরগুনা নৌরুটের সর্বাধীক বিলাশবহুল নৌযান এম ভি রাজারহাট-বি।

হাফিজ আর. হিরা: বাংলাদেশের অন্যতম প্রাচীন ও দীর্ঘতম নৌরুট বরগুনা। রাজধানী নদী বন্দরের সাথে সুদুর বরগুনার নদীপথে চলাচলকারী নৌযানের সুযোগ সুবিধা বাড়ানো ও আধুনিক, বিলাশবহুল নৌযান সার্ভিসভুক্ত করার তাগিদে কিছুদিন আগেও মানববন্ধনে সামিল হয় নৌরুটে চলাচলকারী অবহেলিত বরগুনা বাসী। হয়ত সেই মানববন্ধনের সফলতা আগামী এক সপ্তাহের ব্যবধানে ফলাফল পেতে যাচ্ছে বরগুনাবাসী। আর সেই ফলাফলের স্টার মার্কস এম.ভি রাজারহাট-বি।

এম.ভি রাজারহাট-বি মাঝারী গঠনের এই নৌযানটিই ঢাকা-বরগুনা নৌরুটের ইতিহাসের সর্বাধীক আধুনিক, বিলাশবহুল ও রুচিশীল একটি নৌযান এটি বলা অপেক্ষা রাখেনা। আর কেনই বা সেটি বলার অপেক্ষা রাখেনা সেটি হয়ত উক্ত পোস্টের আলোকচিত্র গুলোই তাহার সাক্ষী। বর্তমান যুগোপযোগী আধুনিক ডেক সুবিধা, দ্রুতগতির ইঞ্জিন, স্যাডো ও এল ই ডি বাতির সংযোজনে সাজানো ইন্টেরিয়র সাজসজ্জা। সুসজ্জিত প্রতিটি সিঙ্গেল ও ডাবল কেবিনের রুচিসম্মত কারুকাজ। শীততাপ নিয়ন্ত্রীত ৬ টি এটাস্ট বাথ ফ্যামিলি কেবিন, ও ২টি নয়নাভিরাম আধুনিকতার রুচিসম্মত ভি আই পি কেবিনের সাজসজ্জার মাধুর্যতা যা আপনাকে মুগ্ধ করতে বাধ্য। সেই সাথে রয়েছে ৩য় তলার রিভার ভিউ ক্যাফে যা আপনার যাত্রায় যুক্ত করবে বিনোদনের নতুন ভুবন। সাথে রিভার সাইডের ভিতর পাশের কেবিন বিন্যাস ও পুরো কেবিন বিন্যাস প্যানেলের রুচিশীল কাঠের সুনিপুণ কারুকাজ আপনার ভাবনায় তৈরী করে দিবে ভ্রমনের চিন্তা ধারার নতুন রশদ।

উপরোক্ত বর্ণনার কেন্দ্রীয় চরিত্রের নামধারী এম ভি রাজারহাট-বি প্রতিটি স্তরের সাজানো রুচিশীল চাকচিক্যতা ও আধুনিকতার মোড়কে তুলেধরা বিলাশবহুল মাত্রা গুলো নদীপথে চলাচলকারী অবহেলিত বরগুনাবাসীর সপ্ন বিলাশের পূর্ণতার রশদ পরিপূর্ণ করার লক্ষেই যেন তৈরী হওয়া একটি নৌযান। যা পুলকিত করবে ঢাকা-বরগুনা নৌরুট সহ পুরো নৌযান সেক্টরের সৌন্দর্য। আগামী ২৪ জুলাই সুদুর বরগুনার নদীপথে আধুনিকতার পতাকা উড়িয়ে অবয়রে ঢেউ মাড়িয়ে এগিয়ে চলবে নৌযানটি সুদুর বরগুনার সমান্তরাল নদীপথে।

শেয়ার করুন

© All rights reserved, প্রবাসী ক্লাব ফাউন্ডেশন- The Expat Club Foundation. (এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি)।  
Design & Developed By NCB IT
Shares